বন অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ মে ২০২০

২২ মে ২০২০ আন্তর্জাতিক জীববৈচিত্র্য দিবস উপলক্ষ্যে বন অধিদপ্তরের ওয়েবিনার


প্রকাশন তারিখ : 2020-05-29

২২ মে ২০২০ আন্তর্জাতিক জীববৈচিত্র্য দিবস। এবছরের প্রতিপাদ্য-প্রকৃতিতেই রয়েছে আমাদের সমাধান । আজকের জাতীয় ও বিশ্ব প্রেক্ষাপটে আমাদের সকলেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও জীববৈচিত্র্যের আবাসস্থল, বিশেষত বিভিন্ন ইকোসিস্টেম যেমন বনাঞ্চল/জলাভূমি/নদী, রক্ষায় সচেষ্ট হতে হবে। প্লাস্টিকসহ সকল রকম দুষণ নিরসনে। বন্যপ্রাণীর অবৈধ শিকার ও পাচার রোধকরতে হবে। দেশের নাগরিকদের সকল প্রকার বন্যপ্রাণের প্রতি সদয় হতে উদ্ভুদ্ধ করতে হিবে। বনসহ সকল প্রাকৃতিক ইকোসিস্টেম বজায় রেখে উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহণ বিষয়ে জাতীয় ঐকমত্য তৈরী করা প্রয়োজন। জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের জন্য কার্যকরী নীতিমালা প্রণয়ন ও তার বাস্তবায়ন প্রয়োজন। উন্নয়ন প্রচেষ্টা সমূহের মধ্যে ঐক্য ও সমন্বয় একইভাবে জরুরী।

কোভিড ১৯ মহামারী আক্রান্ত বিশ্ব পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক জীববৈচিত্র্য দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরার জন্য এবং জীববৈচিত্র সংরক্ষণে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে আমাদের আশু ও দীর্ঘমেয়াদী করনীয় নিয়ে আলোচনার জন্য বন অধিদপ্তরের উদ্দোগে এটাই প্রথম ওয়েবিনার এবং যাতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে যুক্ত ছিলেন আইন প্রণেতা, নীতিনির্ধারক, শিক্ষাবিদ, বন ও প্রাকৃতিক সম্পদ ব্যবস্থাপনা খাতের ৭৮ জন অংশগ্রহনকারী। এই ওয়েবিনারটি হোষ্ট করেছেন রকিবুল হাসান মুকুল, প্রকল্প পরিচালক, সাসটেইনেবল ফরেস্ট এন্ড লাইভলিহুড (সুফল) প্রজেক্ট ও উপ-প্রধান বন সংরক্ষক, বন অধিদপ্তর। এই ওয়েবিনারে অংশ নিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়েয় মাননীয় মন্ত্রী জনাব শাহাবুদ্দিন এমপি, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি জনাব সাবের হোসেন চৌধুরী এমপি, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়েয় সম্মানিত সচিব জনাব জিয়াউল হাসান এনডিসি, অতিরিক্ত সচিব ড. বিল্লাল হোসেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের সম্মানিত মহাপরিচালক জনাব একেএম রফিক আহমেদ, প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চ্যায়ারমেন জনাব মুকিদ মজুমদার বাবু, এতে সভাপতিত্ব করেছেন জনাব আমির হোসাইন চৌধুরী, প্রধান বন সংরক্ষক। ওয়েবিনারে তিনজন আলোচক তিনটি বিষয় ভিত্তিক উপস্থাপনা করেন। জনাব ইমরান আহমেদ, বন সংরক্ষক, সামাজিক বন অঞ্চল ঢাকা দিবসের প্রতিপাদ্য ও জীব বৈচিত্র সংরক্ষণের বন অধিদপ্তরের উদ্দোগ সমূহ উপস্থাপন করেন। ড. মোহাম্মদ জসিম উদ্দীল, অধ্যাপক, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদালয়, বাংলাদেশের উদ্ভিদ বৈচিত্র নিয়ে আলোচনা করেন। ড.মক্নিরুল হাসান খান, অধ্যাপক, প্রাণীবিদ্যা বিভাগ, বাংলাদেশের প্রাণী বৈচিত্র নিয়ে আলোচনা করেন। উপস্থাপিত তিনটি বিষয় ভিত্তিক আলোচনা নিয়ে দেশ বরেণ্য বেশ কিছু গূনীজন তাদের মতামত ও বক্তব্য উপস্থাপন করেন। অনুষ্টানের সঞ্চালক প্যানেলিস্টদের আলোচনাকে কেন্দ্রীভূত রাখার জন্য ৮ টি প্রেক্ষাপট বিবেচনার জন্য উপ্সথাপন করেন। ১। ড্রাইভারস অফ হেবিটেট ডেস্ট্রাকশন ও সংশ্লিষ্ট বিষয়ে করনীয়। ২। প্রটেকটেড এরিয়া ডিক্লারেশন বনাম ব্যবস্থাপনা সক্ষমতার উন্নয়ন, বিলীয়মান প্রজাতি সমুহের সংরক্ষন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন বিশেষত হাতি/ টাইগার একশন প্লান, উন্নয়ন বনাম আবাসস্থল সংরক্ষণ। ৩। সংরক্ষণে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতার উন্নয়ন পরিকল্পনা কতখানি? কি করা দরকার? জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কাজে প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষুমতা ও যুগোপযোগী পলিসি নিয়ে কতখানি সুবিধেজনক অবস্থানে আছে মন্ত্রণালয়ের অধীনস্হ সংস্থাগুলো [ বন অধিদপ্তর, পরিবেশ অধিদপ্তর, ন্যাশনাল হার্বেরিয়াম, বন গবেষণা প্রতিষ্ঠান]? সক্ষমতার তুলনায় তাদের কাছে প্রত্যাশার পাল্লা কি ভারী? ৪। CBD ও অন্যান্য কনভেনশন এবং উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে আমাদের কমিটমেন্ট অর্জনে অগ্রগতি, NBSAP [২০০৪, ২০০১৬- ২০২১] গুলোর হালনাগাদ বাস্তবায়ন পর্যালোচনা, NBSAP বাস্তবায়ন অগ্রগতি নিয়ে CBD এর কাছে প্রেরিত ন্যাশনাল রিপোর্ট প্রস্তুতি ও করনীয়। ৫। একটি শক্তিশালী জৈববৈচিত্র সংরক্ষণ বিষয়ক জাতীয় নীতিমালা প্রস্তুতি। ৬। সরকার পরিচালনাকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে উৎপাদনশীল বন ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ বিষয়ে কমিটমেন্ট অর্জন, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে আনা প্লানেটারী ইমার্জেন্সী বিল, ভিশন ২০২১ এর পরে ভিশন ২০৪১ এ উন্নত দেশের তালিকায় নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করার অংগীকার প্রত্যয় এবং একই সাথে জীববৈচিত্র্য সংরক্ষন কাজ সমুন্নত রাখার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা। ৮। জলবায়ূ পরিবর্তন প্রেক্ষাপটে স্মার্ট এগ্রিকালচার এর প্রবর্তণ, ভূমির যথেচ্ছ ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ, বন ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণে অর্থায়ন নিশ্চিতকরণ, দেশজ খাত থেকে সবুজ অর্থায়নের জন্য গ্রীন বন্ড সহ নতুনতর ফিনান্সিয়াল ইন্সট্রুমেন্ট ইনোভেশন ও প্রবর্তনের প্রয়োজনীয়তা ইত্যাদি।

 

Share with :

Facebook Facebook